• Breaking News

    পানিতে প্রসাব করা, বদ্ধ পানিতে প্রসাব করা জায়েজ কি,

    আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ তোমাদের কেউ যেন বদ্ধ পানিতে পেশাব না করে।[1]

    জাবির (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বদ্ধ পানিতে পেশাব করতে নিষেধ করেছেন।[2]

    ইয়াহইয়া ইবনু ইয়াহইয়া (রহঃ), মুহাম্মাদ ইবনু রুমহ (রহঃ) ও কুতায়বা (রহঃ) ... জাবির (রাঃ) থেকে বর্ণিত যে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম স্থির পানিতে পেশাব করতে নিষেধ করেছেন।[3]
    মুহাম্মাদ ইবনু রাফি (রহঃ) ... আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, তুমি এমনটি করো না যে, প্রবাহিত নয় এমন স্থির পানিতে পেশাব করবে তারপর আবার তা থেকে গোসল করবে।[4]

    আহমাদ ইবনু ইউনূস -----— আবূ হুরায়রা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হতে বর্ণনা করেছেন। তিনি ইরশাদ করেছেনঃ তোমাদের কেউ যেন বদ্ধ পানিতে পেশাব না করে; অতঃপর উক্ত পানি দ্বারা গোসল করে- (বুখারী, মুসলিম, তিরমিযী, ইবনু মাজাহ, নাসাঈ)[5]

    মূসা’দ্দাদ ........... আবূ হুরায়রা (রাঃ) হতে বর্ণিত। নাবী সাল্লাল্লাহু সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ তোমাদের কেউ যেন বদ্ধ পানিতে পেশাব না করে এবং সেখানে যেন অপবিত্রতার (নাপাকীর) গোসলও না করে -(ইবনু মাজাহ)[6]

    কুতায়বা (রহঃ) জাবির (রাঃ) হতে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বদ্ধ পানিতে পেশাব করতে নিষেধ করেছেন।[7]
    ইসহাক ইবনু ইবরাহীম (রহঃ) আবূ হুরায়রা (রাঃ) সূত্রে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন : তোমাদের কেউ যেন বদ্ধ পানিতে পেশাব না করে যেখানে সে পরে উযূ (ওজু/অজু/অযু) করবে।[8]

    [1] বুখারী ২৩৯, মুসলিম ২৮২/১,২; তিরমিযী ৬৮, নাসায়ী ৫৭, ৫৮, ২২১, ৩৯৭, ৩৯৮, ৩৯৯, ৪০০; আবূ দাঊদ ৬৯, ৭০; আ, ৭৪৭৩, ৭৫৪৮,৭৮০৮, ২৭৪০৩, ৮৩৫৩, ৮৫২৩, ৮৮৭১, ৯৩১৩, ২৭০৮৩২, ১০১২, ১০৪৬০, ১০৫১১; দারিমী ৭৩০।
    [2]সুনানে ইবনে মাজাহ, ৩৪৩, মুসলিম ২৮১, নাসায়ী ৩৫, আহমাদ ১৪২৫, ১৪৩৬৩।
    [3]সহীহ মুসলিম (ইফাঃ), ৫৪৮
    [4]সহীহ মুসলিম (ইফাঃ), ৫৫০
    [5]সূনান আবু দাউদ (ইফাঃ), ৬৯
    [6] সূনান আবু দাউদ (ইফাঃ), ৭০
    [7]সূনান নাসাঈ, ৩৫
    সহীহ, ইবনু মাজাহ হাঃ ৩৪৩, ৩৪৪, মুসলিম (ইসলামিক সেন্টার) হাঃ ৫৬২,
    [8]সূনান নাসাঈ, ৫৭
    সহীহ, ইবনু মাজাহ হাঃ ৩৪৪, বুখারী হাঃ ২৩৯

    No comments