• Breaking News

    আকীকা করার নিয়ম কী ? আকীকা করার নিয়ম কানুন, আকীকা দেয়ার সঠিক পদ্ধতি,

    শিশুর আকীকা করার প্রয়োজনীয়তা ও নিয়মাবলিঃ
    আকীকা দেয়ার গুরুত্বঃ

    حدثنا هشام بن عمار، حدثنا شعيب بن إسحاق، حدثنا سعيد بن أبي عروبة، عن قتادة، عن الحسن، عن سمرة، عن النبي ـ صلى الله عليه وسلم ـ قال ‏ "‏ كل غلام مرتهن بعقيقته تذبح عنه يوم السابع ويحلق رأسه ويسمى ‏"‏ ‏.‏

    সামুরাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেনঃ প্রত্যেক শিশু তার আকীকার সাথে দায়বদ্ধ থাকে। তার জন্মের সপ্তম দিনে তার পক্ষ থেকে পশু যবেহ করতে হয়, তার মাথা কামাতে হয় এবং নাম রাখতে হয়।
    সহীহুল বুখারী ৫৪৭২, তিরমিযী ১৫৪৪, নাসায়ী ৪২২০, আবূ দাউদ ২৮৩৭, ২৮৩৮, আহমাদ ১৯৫৭৯, ২৭৭০৯, ১৯৬৭৬, ১৯৭৪৩, দারেমী ১৯৬৯, ইরওয়া ১১৬৫, মিশকাত ৪১৫৩। সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস নং ৩১৬৫,

    حدثنا أبو بكر بن أبي شيبة، حدثنا عبد الله بن نمير، حدثنا هشام بن حسان، عن حفصة بنت سيرين، عن سلمان بن عامر، أنه سمع النبي ـ صلى الله عليه وسلم ـ يقول ‏ "‏ إن مع الغلام عقيقة فأهريقوا عنه دما وأميطوا عنه الأذى ‏"‏ ‏.‏

    সালামান বিন আমির (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কে বলতে শুনেছেনঃ শিশুর পক্ষ থেকে আকীকা করতে হবে অতএব তোমরা তার পক্ষ থেকে রক্ত প্রবাহিত করো (পশু যবেহ করো) এবং তার থেকে কষ্টদায়ক বস্তু দূর করো।
     সহীহুল বুখারী ৫৪৭১, তিরমিযী ১৫১৫, নাসায়ী ৪২১৪, আবূ দাউদ ২৮৩৯, আহমাদ ২৭৫৪২, ১৫৭৯৭, ১৭৪১৫, ১৭৪২৯, দারেমী ১৯৬৭, ইরওয়া ১১৭১, সহীহ আবু দাউদ ২৫২৯, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস নং ৩১৬৪,

    حدثنا الحسن بن علي الخلال، حدثنا عبد الرزاق، أخبرنا هشام بن حسان، عن حفصة بنت سيرين، عن الرباب، عن سلمان بن عامر الضبي، قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم ‏ "‏ مع الغلام عقيقة فأهريقوا عنه دما وأميطوا عنه الأذى ‏"‏ ‏.‏

    সালমান ইবনু আমির আয-যাব্বী (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেনঃ প্রত্যেক শিশুর পক্ষেই আকীকা করা দরকার। অতএব তার পক্ষ হতে তোমরা রক্ত প্রবাহিত কর (পশু যবেহ কর) এবং তার হতে ময়লা (বা কষ্টদায়ক বস্তু, যেমন চুল) দূর কর। সহীহ্, ইবনু মা-জাহ (৩১৬৪),জামে' আত-তিরমিজি, হাদিস নং ১৫১৫,


    حدثنا أبو بكر بن أبي شيبة، وهشام بن عمار، قالا حدثنا سفيان بن عيينة، عن عبيد الله بن أبي يزيد، عن أبيه، عن سباع بن ثابت، عن أم كرز، قالت سمعت النبي ـ صلى الله عليه وسلم ـ يقول ‏ "‏ عن الغلام، شاتان مكافئتان وعن الجارية، شاة ‏"‏ ‏.‏

    উম্মু কুরয (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি বলেন, আমি নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কে বলতে শুনেছিঃ পুত্র সন্তানের পক্ষ থেকে দু’টি বকরী এবং কন্যা সন্তানের পক্ষ থেকে একটি বকরী (আকীকাস্বরূপ যবেহ করা) যথেষ্ট।
     তিরমিযী ১৫১৬, নাসায়ী ৪২১৫, ৪২১৬, ৪২১৭, ৪২১৮, আবূ দাউদ ২৮৩৪, ২৮৩৫, ২৮৩৬, দারিমী ১৯৬৬। ইরওয়া’ ৪/৩৯০, ৩৯১, সহীহ আবূ দাউদ ২৫২৩-২৫২৬, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস নং ৩১৬২

    أخبرنا قتيبة قال: حدثنا سفيان، عن عبيد الله وهو ابن أبي يزيد، عن سباع بن ثابت، عن أم كرز قالت: أتيت النبي صلى الله عليه وسلم بالحديبية أسأله عن لحوم الهدي، فسمعته يقول: «على الغلام شاتان، وعلى الجارية شاة، لا يضركم ذكرانا كن أم إناثا»

    উম্মে কুরয (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি বলেনঃ আমি হুদায়বিয়ায় রাসূলুল্লাহ্ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-এর নিকট কুরবানীর জন্তুর গোশ্ত সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করার জন্য উপস্থিত হই। তখন আমি তাঁকে বলতে শুনিঃ পুত্র সন্তানের পক্ষ হতে আকীকার জন্য দু’টি বকরী, আর কন্যা সন্তানের জন্য একটি বকরী তা নর হোক বা মাদী, যবেহ করতে হবে।
      সুনানে আন-নাসায়ী, হাদিস নং ৪২১৭


    أخبرنا أحمد بن حفص بن عبد الله قال: حدثني أبي قال: حدثني إبراهيم هو ابن طهمان، عن الحجاج بن الحجاج، عن قتادة، عن عكرمة، عن ابن عباس قال: «عق رسول الله صلى الله عليه وسلم عن الحسن والحسين رضي الله عنهما بكبشين كبشين»

    ইব্‌ন আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ্ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) হাসান এবং হুসায়নের আকীকায় দু’টি করে বকরী যবেহ করেন।
     সুনানে আন-নাসায়ী, হাদিস নং ৪২১৯


    أخبرنا عمرو بن علي، ومحمد بن عبد الأعلى قالا: حدثنا يزيد وهو ابن زريع، عن سعيد، أنبأنا قتادة، عن الحسن، عن سمرة بن جندب، عن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال: «كل غلام رهين بعقيقته تذبح عنه يوم سابعه ويحلق رأسه ويسمى»

    সামুরা ইব্‌ন জুনদুব (রাঃ) রাসূলুল্লাহ্ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি বলেনঃ প্রত্যেক সন্তান স্বীয় আকীকার সাথে আবদ্ধ। তার পক্ষ হতে তা তার জন্মের সপ্তম দিনে যবেহ করতে হবে। সেদিন তার মাথা মুণ্ডন করতে হবে এবং তার নাম রাখতে হবে।
      সুনানে আন-নাসায়ী, হাদিস নং ৪২২০


    حدثنا أبو سلمة، يحيى بن خلف البصري حدثنا بشر بن المفضل، أخبرنا عبد الله بن عثمان بن خثيم، عن يوسف بن ماهك، أنهم دخلوا على حفصة بنت عبد الرحمن فسألوها عن العقيقة، فأخبرتهم أن عائشة أخبرتها أن رسول الله صلى الله عليه وسلم أمرهم عن الغلام شاتان مكافئتان وعن الجارية شاة ‏.‏ قال وفي الباب عن علي وأم كرز وبريدة وسمرة وأبي هريرة وعبد الله بن عمرو وأنس وسلمان بن عامر وابن عباس ‏.‏ قال أبو عيسى حديث عائشة حديث حسن صحيح ‏.‏ وحفصة هي بنت عبد الرحمن بن أبي بكر الصديق ‏.‏

    ইউসুফ ইবনু মাহাক (রহঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তারা কয়েকজন একত্রিত হয়ে আবদুর রাহমানের মেয়ে হাফসার নিকট গেলেন। তারা তাকে আকীকার ব্যপারে প্রশ্ন করলে তিনি তাদেরকে জানান যে, তাকে আইশা (রাঃ) জানিয়েছেন, ছেলে সন্তানের পক্ষে একই বয়সের দু’টি বকরী এবং মেয়ে সন্তানের পক্ষে একটি বকরী আকীকা দেওয়ার জন্যে তাদেরকে রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) নির্দেশ দিয়েছেন।
    সহীহ্, ইবনু মা-জাহ ৩১৩৬, জামে' আত-তিরমিজি, হাদিস নং ১৫১৩


    حدثنا علي بن حجر، أخبرنا علي بن مسهر، عن إسماعيل بن مسلم، عن الحسن، عن سمرة، قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم ‏ "‏ الغلام مرتهن بعقيقته يذبح عنه يوم السابع ويسمى ويحلق رأسه ‏"‏ ‏.‏
    حدثنا الحسن بن علي الخلال، حدثنا يزيد بن هارون، أخبرنا سعيد بن أبي عروبة، عن قتادة، عن الحسن، عن سمرة بن جندب، عن النبي صلى الله عليه وسلم نحوه ‏.‏ قال أبو عيسى هذا حديث حسن صحيح ‏.‏ والعمل على هذا عند أهل العلم يستحبون أن يذبح عن الغلام العقيقة يوم السابع فإن لم يتهيأ يوم السابع فيوم الرابع عشر فإن لم يتهيأ عق عنه يوم حاد وعشرين وقالوا لا يجزئ في العقيقة من الشاة إلا ما يجزئ في الأضحية ‏.‏

    সামুরা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ:
    তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ সকল শিশুই তার আকীকার সাথে বন্ধক (দায়বদ্ধ) অবস্থায় থাকে। জন্মগ্রহণ করার সপ্তম দিনে তার পক্ষে যবেহ করতে হবে, তার নাম রাখতে হবে এবং তার মাথা নেড়া করতে হবে।
    সহীহ্, ইবনু মা-জাহ (৩১৬৫)

    আকীকার নিয়ম,
    আকীকা

    যে লোক সৎকাজের জন্য কোন সুপারিশ করবে, তা থেকে সেও একটি অংশ পাবে। আর যে লোক সুপারিশ করবে মন্দ কাজের জন্যে সে তার বোঝারও একটি অংশ পাবে। বস্তুতঃ আল্লাহ সর্ব বিষয়ে ক্ষমতাশীল। সূরা আন নিসা:85 আপনিও একটি অংশ পেতে হলে পোষ্টটি শেয়ার করুন ৷

    No comments